Archive for November, 2013

November 14, 2013

পদত্যাগপত্র নয়, নিছক আনুষ্ঠানিকতা : শফিক আহমেদ

আইনমন্ত্রী ব্যারিস্টার শফিক আহমেদ বলেছেন,

মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীরা যেসব পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন, সেসব পদত্যাগপত্র নয়, নিছক আনুষ্ঠানিকতামাত্র।

আইনমন্ত্রীর ভাষায়, ‘রাষ্ট্রপতিকে উদ্দেশ করে কোনো পদত্যাগপত্র দেয়া হয়নি, এটি পদত্যাগপত্রই না, এটি একটি আনুষ্ঠানিকতামাত্র। সে ক্ষেত্রে এটা কিসের আনুষ্ঠানিকতা জানতে চাইলে তিনি কোনো মন্তব্য করেননি।

তিনি বলেন, মন্ত্রীরা কেউ পদত্যাগ করেননি, তারা অভিপ্রায় ব্যক্ত করেছেন মাত্র। যে পদত্যাগপত্র দেয়া হয়েছে, তা সংবিধান অনুযায়ীও হয়নি।

সংবিধানের বিধান অনুযায়ী রাষ্ট্রপতির কাছে পেশ করার আগ পযন্ত কোনো পদত্যাগপত্রই কার্যকর হয় না। কাজেই মন্ত্রিপরিষদে যারা আছেন তারা মন্ত্রী হিসেবেই থাকবেন। তাদের পদ শূন্য হয়নি, মন্ত্রীর সুযোগ সুবিধা নেয়া এবং দায়িত্ব পালনেও কোনো বাধা নেই। যারা সর্বদলীয় সরকারে থাকবেন না, তাদের নতুন করে পদত্যাগপত্র দিতে হবে কি না জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, এটি কার্যকর করতে রাষ্ট্রপতির কাছে পেশ করার জন্য দিতে হবে। দ্বিতীয়বার পদত্যাগপত্র দিতে হবে না, পদত্যাগের জন্য মুখে বললেই হবে। তাহলে গত সোমবার মন্ত্রীরা প্রধানমন্ত্রীর হাতে যে পত্র দিয়েছেন, তাকে কী বলা হবে এমন প্রশ্নের জবাবে ব্যারিস্টার শফিক আহমেদ বলেন, আপনারা যা খুশি বলতে পারেন।

তথ্যসূত্র: NayaDiganta

Advertisements
November 14, 2013

অবৈধ সরকারের নির্দেশে জনপ্রশাসন জনগণের ওপর জুলুম করলে পাল্টা জবাব দেয়া বৈধ -রুহল কবির রিজভী

সংবিধান অনুযায়ী বর্তমান সরকার অবৈধ- এমন মন্তব্য করে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন,
এই সরকারের নির্দেশে প্রশাসন জনগণের ওপর জুলুম করলে এর পাল্টা জবাব দেয়া বৈধ এবং ন্যায়সঙ্গত হবে।
তথ্যসূত্র: ইনকিলাব
November 14, 2013

‘পদত্যাগ নাটক’ নিয়ে সরকার বেকায়দায়

মন্ত্রীদের ‘পদত্যাগ নাটক’ নিয়ে বেকায়দায় পড়েছে সরকার। ঘোষণা দিয়ে পদত্যাগ করার পরও মন্ত্রীদের দায়িত্ব চালিয়ে যাওয়া সংবিধান ও নৈতিকতা পরিপন্থী বলে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের ভেতরেই সমালোচনা হচ্ছে।

ইতিমধ্যে তিনজন আইনজীবী এ বিষয়ে আইনি নোটিশ দিয়েছেন। এর মধ্যে রোববার আবার মন্ত্রিসভার বৈঠকও ডাকা হয়েছে।

সরকারের শীর্ষস্থানীয় কয়েকটি সূত্র জানায়, গতকাল বুধবার আইন মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে সাংবিধানিক দিক ব্যাখ্যা করে বোঝানো হয়। বলা হয়েছে, মন্ত্রীদের দায়িত্ব পালন করা আইনগতভাবে ঠিক হচ্ছে না। কাদের পদত্যাগপত্র গ্রহণ করা হয়েছে আর কারা মন্ত্রিসভায় থাকছেন, তা পরিষ্কার করা উচিত বলে প্রধানমন্ত্রীকে পরামর্শ দেওয়া হয়।

তথ্যসূত্র: প্রথম আলো